১২:২৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

মালয়েশিয়া যেতে ২ লাখ বাংলাদেশি কর্মীর আবেদন

  • নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : ১১:৫৩:০০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১ মে ২০২২
  • ১৬৫ বার পঠিত

বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ দিচ্ছে মালয়েশিয়া, নিয়োগ কর্তাদের কাছ থেকে ২ লাখ আবেদন পেয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

এইচআরডি কর্পোরেশন ওপেন ডে চালু করার পরে গত বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সংবাদ সম্মেলনে মানব সম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান এ তথ্য জানিয়েছেন।

মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী বলেন, চলিত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে সব সেক্টরের জন্য শ্রমিকদের অনুমতি দেওয়া হবে। তবে বিদেশি কর্মীদের জন্য আনয়ন কোর্স বাধ্যতামূলক করা হবে। এবং মালয়েশিয়ায় থাকাকালীন তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে। এছাড়াও বিদেশি কর্মীদের আনার জন্য কোনো এজেন্ট ব্যবহার করা হবে না। এর কারণ নিয়োগ কর্তাদের এজেন্টদের অপব্যবহারের সমস্যা দূর করতে সরাসরি কর্মী নিয়োগ করা হবে।

মানব সম্পদ মন্ত্রী সারাভানান আরও বলেন, বিদেশি কর্মীদের আনার জন্য মন্ত্রীদের আর কোনও বিশেষ অনুমোদন দেওয়া হবে না এবং ই-মজুরি ব্যবস্থা কার্যকর করা হবে। এবং যেখানে বিদেশি কর্মীদের প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে বেতন দিতে হবে।

About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি রয়েছে সৌম্যর সরকারের মধ্যে

নেত্রকোনা শহর রক্ষা বাধে ভাঙ্গন

মালয়েশিয়া যেতে ২ লাখ বাংলাদেশি কর্মীর আবেদন

আপডেট টাইম : ১১:৫৩:০০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১ মে ২০২২

বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ দিচ্ছে মালয়েশিয়া, নিয়োগ কর্তাদের কাছ থেকে ২ লাখ আবেদন পেয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

এইচআরডি কর্পোরেশন ওপেন ডে চালু করার পরে গত বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সংবাদ সম্মেলনে মানব সম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান এ তথ্য জানিয়েছেন।

মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী বলেন, চলিত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে সব সেক্টরের জন্য শ্রমিকদের অনুমতি দেওয়া হবে। তবে বিদেশি কর্মীদের জন্য আনয়ন কোর্স বাধ্যতামূলক করা হবে। এবং মালয়েশিয়ায় থাকাকালীন তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে। এছাড়াও বিদেশি কর্মীদের আনার জন্য কোনো এজেন্ট ব্যবহার করা হবে না। এর কারণ নিয়োগ কর্তাদের এজেন্টদের অপব্যবহারের সমস্যা দূর করতে সরাসরি কর্মী নিয়োগ করা হবে।

মানব সম্পদ মন্ত্রী সারাভানান আরও বলেন, বিদেশি কর্মীদের আনার জন্য মন্ত্রীদের আর কোনও বিশেষ অনুমোদন দেওয়া হবে না এবং ই-মজুরি ব্যবস্থা কার্যকর করা হবে। এবং যেখানে বিদেশি কর্মীদের প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে বেতন দিতে হবে।