১১:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

রাস্তার ২ ধারে একটি কুঁড়েঘরও দেখলাম না: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘ঢাকা থেকে নীলফামারীর জলঢাকা আসার পথে রাস্তার দুই ধারে একটি কুঁড়েঘরও দেখলাম না। এখন আর কুঁড়েঘর নিয়ে কবিতা লেখা যাবে না। কবিতা লিখতে হলে পদ্মা সেতু নিয়ে লিখতে হবে।’
আজ শনিবার বিকেল ৩টার দিকে নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। জলঢাকা সরকারি কলেজ মাঠে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা।
বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘দেশে যথা সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা চাই সব দলের অংশগ্রহণে উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হোক। আমরা আশা করি, নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে। তবে নির্বাচনের ট্রেন কারও জন্য দাঁড়িয়ে থাকবে না। ২০১৪ সালের ট্রেন যেমন কারও জন্য দাঁড়িয়ে ছিল না, ২০১৮ সালেও নির্বাচনের ট্রেন কারও জন্য দাঁড়িয়ে ছিল না। সুতরাং ২০২৪ সালের শুরুতে যে নির্বাচন হবে সেই ট্রেনটিও কারও জন্য দাঁড়িয়ে থাকবে না।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০১৮ সালে সব দলের ঐক্য করে তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিল এবং সেই নির্বাচনে মাত্র পাঁচটি আসন পেয়েছিল। এ জন্য তারা নির্বাচনকে ভয় পায়। সে জন্যই তারা নির্বাচন নিয়ে নানা ধরনের বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমি বিএনপিকে অনুরোধ জানাব- এই ধরনের বিভ্রান্তি না ছড়িয়ে বরং জনগণের কাছে যাওয়ার জন্য।’
তিনি বলেন, ‘আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমগ্র দেশে সুসংগঠিত। আমাদের দলে যেভাবে তৃণমূল পর্যায়ে নেতৃত্বকে মূল্যায়ন করে তাদেরকে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃত্বের আসনে বসানো হচ্ছে।’

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত সুসংগঠিত। দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিজয় হবে। সে কারণে বিএনপি শঙ্কিত।’

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি রয়েছে সৌম্যর সরকারের মধ্যে

নেত্রকোনা শহর রক্ষা বাধে ভাঙ্গন

রাস্তার ২ ধারে একটি কুঁড়েঘরও দেখলাম না: তথ্যমন্ত্রী

আপডেট টাইম : ১২:৪৫:৪৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩১ জুলাই ২০২২

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘ঢাকা থেকে নীলফামারীর জলঢাকা আসার পথে রাস্তার দুই ধারে একটি কুঁড়েঘরও দেখলাম না। এখন আর কুঁড়েঘর নিয়ে কবিতা লেখা যাবে না। কবিতা লিখতে হলে পদ্মা সেতু নিয়ে লিখতে হবে।’
আজ শনিবার বিকেল ৩টার দিকে নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। জলঢাকা সরকারি কলেজ মাঠে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা।
বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘দেশে যথা সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা চাই সব দলের অংশগ্রহণে উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হোক। আমরা আশা করি, নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে। তবে নির্বাচনের ট্রেন কারও জন্য দাঁড়িয়ে থাকবে না। ২০১৪ সালের ট্রেন যেমন কারও জন্য দাঁড়িয়ে ছিল না, ২০১৮ সালেও নির্বাচনের ট্রেন কারও জন্য দাঁড়িয়ে ছিল না। সুতরাং ২০২৪ সালের শুরুতে যে নির্বাচন হবে সেই ট্রেনটিও কারও জন্য দাঁড়িয়ে থাকবে না।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০১৮ সালে সব দলের ঐক্য করে তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিল এবং সেই নির্বাচনে মাত্র পাঁচটি আসন পেয়েছিল। এ জন্য তারা নির্বাচনকে ভয় পায়। সে জন্যই তারা নির্বাচন নিয়ে নানা ধরনের বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমি বিএনপিকে অনুরোধ জানাব- এই ধরনের বিভ্রান্তি না ছড়িয়ে বরং জনগণের কাছে যাওয়ার জন্য।’
তিনি বলেন, ‘আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমগ্র দেশে সুসংগঠিত। আমাদের দলে যেভাবে তৃণমূল পর্যায়ে নেতৃত্বকে মূল্যায়ন করে তাদেরকে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃত্বের আসনে বসানো হচ্ছে।’

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত সুসংগঠিত। দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিজয় হবে। সে কারণে বিএনপি শঙ্কিত।’