০৪:২৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচনে ‘একক প্রার্থী’ হিসেবে ডা. তাহসীন বাহার সূচনার নাম চূড়ান্ত করেছে মহানগর আওয়ামী লীগ

  • সময়ঃ ০৬:৪৫:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ১৬ সময়

ডেস্ক রিপোর্ট : কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের (কুসিক) মেয়র পদে উপনির্বাচনে ‘একক প্রার্থী’ হিসেবে ডা. তাহসীন বাহার সূচনার নাম চূড়ান্ত করেছে মহানগর আওয়ামী লীগ। ডা. সূচনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। তিনি কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের বড় মেয়ে।
বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে কুমিল্লা জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

দলীয় সূত্রগুলো জানায়, কুসিক মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকে সংসদ সদস্য বাহাউদ্দিন বাহারের অনুসারীদের মধ্যে প্রার্থী হিসেবে হাফ ডজনের অধিক প্রার্থীর নাম আলোচনায় আসে। তবে সর্বত্র ঘুরে-ফিরে আলোচনার শীর্ষে ছিল এমপিকন্যা ডা. সূচনার নাম। তাই স্থানীয়ভাবে দলের ‘একক প্রার্থীর’ বিষয়টি চূড়ান্ত করতে বিশেষ বর্ধিত সভা আহ্বান করা হয়।

সভায় ডা. তাহসীন বাহার সূচনা ছাড়াও দলের মহানগর শাখার সহসভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম সেলিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামল কুমার ভট্টাচার্যের নাম প্রস্তাবনা হয়। পরে ডা. সূচনাকে সমর্থন জানান অপর দুইজন। তারা ডা. সূচনার বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করার ঘোষণা দেন। পরে রাত ১০টার দিকে সভার সভাপতি এমপি বাহার মেয়র পদে একক প্রার্থী হিসেবে ডা. সূচনার নাম ঘোষণা করেন।

ডা. সূচনা বলেন, আমি বিজয়ী হলে একটি বাসযোগ্য সুন্দর নগরীর পরিকল্পনা করবো। যেখানে মানুষ সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারবে। সকলের ভালোবাসা নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, আমরা অতীতের ন্যায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে বিজয় সুনিশ্চিত। সিটি কর্পোরেশন আপনাদের হাতে থাকলে উন্নয়ন হবে। নগরীর উন্নয়নে তাকে বিজয়ী করতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য, তফসিল অনুযায়ী এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়ন বাছাই ১৫ ফেব্রুয়ারি, আপিল নিষ্পত্তি ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি, প্রতীক বরাদ্ধ ২৩ ফেব্রুয়ারি এবং ইভিএমে ভোট হবে আগামী ৯ মার্চ।

About Author Information

জনপ্রিয় নিউজ

অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক এবং শ্রীময়ী চট্টরাজের নতুন জীবন শুরু

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচনে ‘একক প্রার্থী’ হিসেবে ডা. তাহসীন বাহার সূচনার নাম চূড়ান্ত করেছে মহানগর আওয়ামী লীগ

সময়ঃ ০৬:৪৫:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ডেস্ক রিপোর্ট : কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের (কুসিক) মেয়র পদে উপনির্বাচনে ‘একক প্রার্থী’ হিসেবে ডা. তাহসীন বাহার সূচনার নাম চূড়ান্ত করেছে মহানগর আওয়ামী লীগ। ডা. সূচনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। তিনি কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারের বড় মেয়ে।
বৃহস্পতিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে কুমিল্লা জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

দলীয় সূত্রগুলো জানায়, কুসিক মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকে সংসদ সদস্য বাহাউদ্দিন বাহারের অনুসারীদের মধ্যে প্রার্থী হিসেবে হাফ ডজনের অধিক প্রার্থীর নাম আলোচনায় আসে। তবে সর্বত্র ঘুরে-ফিরে আলোচনার শীর্ষে ছিল এমপিকন্যা ডা. সূচনার নাম। তাই স্থানীয়ভাবে দলের ‘একক প্রার্থীর’ বিষয়টি চূড়ান্ত করতে বিশেষ বর্ধিত সভা আহ্বান করা হয়।

সভায় ডা. তাহসীন বাহার সূচনা ছাড়াও দলের মহানগর শাখার সহসভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম সেলিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামল কুমার ভট্টাচার্যের নাম প্রস্তাবনা হয়। পরে ডা. সূচনাকে সমর্থন জানান অপর দুইজন। তারা ডা. সূচনার বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করার ঘোষণা দেন। পরে রাত ১০টার দিকে সভার সভাপতি এমপি বাহার মেয়র পদে একক প্রার্থী হিসেবে ডা. সূচনার নাম ঘোষণা করেন।

ডা. সূচনা বলেন, আমি বিজয়ী হলে একটি বাসযোগ্য সুন্দর নগরীর পরিকল্পনা করবো। যেখানে মানুষ সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারবে। সকলের ভালোবাসা নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই।

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, আমরা অতীতের ন্যায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে বিজয় সুনিশ্চিত। সিটি কর্পোরেশন আপনাদের হাতে থাকলে উন্নয়ন হবে। নগরীর উন্নয়নে তাকে বিজয়ী করতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য, তফসিল অনুযায়ী এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়ন বাছাই ১৫ ফেব্রুয়ারি, আপিল নিষ্পত্তি ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি, প্রতীক বরাদ্ধ ২৩ ফেব্রুয়ারি এবং ইভিএমে ভোট হবে আগামী ৯ মার্চ।