০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিশুদের যৌন নিপীড়ন, হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট পদত্যাগ

  • সময়ঃ ০৫:৪০:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ১৬ সময়

ডেস্ক রিপোর্ট : শিশুদের যৌন নিপীড়ন ক্ষমা প্রদর্শন করে জনরোষের মুখে পড়ে পদত্যাগ করলেন হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট কাতালিন নোভাক। তার বিরুদ্ধে গত কয়েক দিন ধরে দেশ জুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। খবর এএফপির।

এ সময় ক্যাটালিন বলেন, আমি একটা ভুল করে ফেলেছি। আমার সিদ্ধান্তে অনেকে ব্যথিত হয়েছেন। ভুল বার্তা গিয়েছে সমাজের কাছে। তাই আমি প্রেসিডেন্টের পদ ছেড়ে দিচ্ছি।

জানা গেছে, ২০২৩ সালের এপ্রিলে এক ধারাবাহিক যৌন নিপীড়নকারীকে ক্ষমা প্রদর্শন করে তার সাজা লাঘব করেছিলেন ক্যাটালিন। দেশের মানুষ প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি। তাই তার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়েছিল মধ্য ইউরোপের দেশটিতে।

ক্ষমা পাওয়া ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে শিশু নিগ্রহের অভিযোগ প্রমাণিত। সরকারচালিত একটি হোমে তিনি শিশুদের উপর যৌন নির্যাতন চালাতেন। গোপনে দীর্ঘ দিন ধরে এই কাজ করে আসছিলেন তিনি। পরে ধরা পড়েন এবং আদালত তার শাস্তির নির্দেশ দেয়। আট বছরের সাজা হয়েছিল ওই অপরাধীর। ক্যাটালিন প্রেসিডেন্টের ক্ষমতাবলে তা কমিয়ে দিয়েছিলেন।

হাঙ্গেরির প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট হিসাবে ২০২২ সালে শপথ নিয়েছিলেন ক্যাটালিন। এর আগে তিনি শাসকদল ফিডেসের মন্ত্রী ছিলেন। ওই দল ২০১০ সাল থেকে হাঙ্গেরির ক্ষমতায় রয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে হাঙ্গেরির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ক্যাটালিন। তার সিদ্ধান্তে শাসকদলও অস্বস্তিতে পড়েছিল। দেশ জুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ চেয়ে। জনগণের দাবিকে মান্যতা দিয়ে পদ ছেড়েছেন ক্যাটালিন

About Author Information

জনপ্রিয় নিউজ

অভিনেতা কাঞ্চন মল্লিক এবং শ্রীময়ী চট্টরাজের নতুন জীবন শুরু

শিশুদের যৌন নিপীড়ন, হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট পদত্যাগ

সময়ঃ ০৫:৪০:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ডেস্ক রিপোর্ট : শিশুদের যৌন নিপীড়ন ক্ষমা প্রদর্শন করে জনরোষের মুখে পড়ে পদত্যাগ করলেন হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট কাতালিন নোভাক। তার বিরুদ্ধে গত কয়েক দিন ধরে দেশ জুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। খবর এএফপির।

এ সময় ক্যাটালিন বলেন, আমি একটা ভুল করে ফেলেছি। আমার সিদ্ধান্তে অনেকে ব্যথিত হয়েছেন। ভুল বার্তা গিয়েছে সমাজের কাছে। তাই আমি প্রেসিডেন্টের পদ ছেড়ে দিচ্ছি।

জানা গেছে, ২০২৩ সালের এপ্রিলে এক ধারাবাহিক যৌন নিপীড়নকারীকে ক্ষমা প্রদর্শন করে তার সাজা লাঘব করেছিলেন ক্যাটালিন। দেশের মানুষ প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি। তাই তার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়েছিল মধ্য ইউরোপের দেশটিতে।

ক্ষমা পাওয়া ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে শিশু নিগ্রহের অভিযোগ প্রমাণিত। সরকারচালিত একটি হোমে তিনি শিশুদের উপর যৌন নির্যাতন চালাতেন। গোপনে দীর্ঘ দিন ধরে এই কাজ করে আসছিলেন তিনি। পরে ধরা পড়েন এবং আদালত তার শাস্তির নির্দেশ দেয়। আট বছরের সাজা হয়েছিল ওই অপরাধীর। ক্যাটালিন প্রেসিডেন্টের ক্ষমতাবলে তা কমিয়ে দিয়েছিলেন।

হাঙ্গেরির প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট হিসাবে ২০২২ সালে শপথ নিয়েছিলেন ক্যাটালিন। এর আগে তিনি শাসকদল ফিডেসের মন্ত্রী ছিলেন। ওই দল ২০১০ সাল থেকে হাঙ্গেরির ক্ষমতায় রয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে হাঙ্গেরির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ক্যাটালিন। তার সিদ্ধান্তে শাসকদলও অস্বস্তিতে পড়েছিল। দেশ জুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ চেয়ে। জনগণের দাবিকে মান্যতা দিয়ে পদ ছেড়েছেন ক্যাটালিন