০২:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তৃতীয় দফায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন নরেন্দ্র মোদি

  • সময়ঃ ১২:২৭:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪
  • ৯ সময়

SYDNEY, AUSTRALIA - MAY 24: Indian Prime Minister Narendra Modi speaks at a joint news conference with Australian Prime Minister Anthony Albanese (R) at Admiralty House on May 24, 2023 in Sydney, Australia. Modi is visiting Australia on the heels of his and Albanese's participation in the G7 summit in Japan. (Photo by Saeed Khan-Pool/Getty Images)

স্টাফ রিপোর্টার :তৃতীয়  দফায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন নরেন্দ্র মোদি। রোববার (৯ জুন) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটের দিকে তাকে শপথ পাঠ করানো শুরু করেন দেশটির রাষ্ট্রপতি দ্রোপদী মুর্মু।

নরেন্দ্র মোদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিনন্দন 

কংগ্রেস নেতা জওহরলাল নেহেরুর পর ভারতে টানা তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হলেন বিজেপি নেতা মোদি। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদি শপথ নেয়ার পর শুরু হয় মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ।

 

এনডিটিভি জানায়, মোদির শপথ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও প্রতিবেশী দেশগুলোর বেশ কয়েকজন নেতা উপস্থিত থাকবেন। রাষ্ট্রপতি ভবনে আট হাজারের বেশি অতিথির জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে।
ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছে ইউরোপের তিন দেশ
এর আগে, গত বুধবার (৫ জুন) টেলিফোনে নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আলাপকালে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান নরেন্দ্র মোদি। শেখ হাসিনা এই আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন।
শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়াও উপস্থিত রয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুইজ্জুসহ বেশ কয়েকটি দেশের নেতারা। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে কয়েক হাজার বিশিষ্টজনও উপস্থিত হয়েছেন রাষ্ট্রপতি ভবনে।

ছয় ধাপে ভোটগ্রহণ শেষে গত ৪ জুন ঘোষণা করা হয় ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচনে জয়ীদের নাম। নির্বাচনে বিজেপি পেয়েছে ২৪০টি আসন। আর কংগ্রেস জয়ী হয়েছে ৯৯টি আসনে। অন্য দলগুলোর মধ্যে সমাজবাদী পার্টি (এসপি) ৩৭টি, তৃণমূল কংগ্রেস ২৯টি, ডিএমকে ২২টি, তেলেগু দেশম পার্টি (টিডিপি) ১৬টি, জনতা দল (জেডি-ইউ) ১২টি, শিবসেনা (উদ্ভব) নয়টি, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি (এনসিপিএসপি) সাতটি ও শিবসেনা (এসএইচএস) সাতটি আসনে জয় পায়।

এছাড়া, লোক জনশক্তি পার্টি (রাম বিলাস) পেয়েছে ৫টি আসন। ৪টি করে আসনে জয় পেয়েছে কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়া (মার্ক্সিস্ট)- সিপিআই (এম), ওয়াইএসআরসিপি ও রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি)। ৩টি করে আসনে জয় পেয়েছে আম আদমি পার্টি, ঝাড়খন্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম) ও ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লীগ (আইইউএমএল)।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় নিউজ

তৃতীয় দফায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন নরেন্দ্র মোদি

সময়ঃ ১২:২৭:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার :তৃতীয়  দফায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন নরেন্দ্র মোদি। রোববার (৯ জুন) বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটের দিকে তাকে শপথ পাঠ করানো শুরু করেন দেশটির রাষ্ট্রপতি দ্রোপদী মুর্মু।

নরেন্দ্র মোদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিনন্দন 

কংগ্রেস নেতা জওহরলাল নেহেরুর পর ভারতে টানা তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হলেন বিজেপি নেতা মোদি। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদি শপথ নেয়ার পর শুরু হয় মন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ।

 

এনডিটিভি জানায়, মোদির শপথ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও প্রতিবেশী দেশগুলোর বেশ কয়েকজন নেতা উপস্থিত থাকবেন। রাষ্ট্রপতি ভবনে আট হাজারের বেশি অতিথির জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে।
ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছে ইউরোপের তিন দেশ
এর আগে, গত বুধবার (৫ জুন) টেলিফোনে নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আলাপকালে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান নরেন্দ্র মোদি। শেখ হাসিনা এই আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন।
শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়াও উপস্থিত রয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুইজ্জুসহ বেশ কয়েকটি দেশের নেতারা। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে কয়েক হাজার বিশিষ্টজনও উপস্থিত হয়েছেন রাষ্ট্রপতি ভবনে।

ছয় ধাপে ভোটগ্রহণ শেষে গত ৪ জুন ঘোষণা করা হয় ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচনে জয়ীদের নাম। নির্বাচনে বিজেপি পেয়েছে ২৪০টি আসন। আর কংগ্রেস জয়ী হয়েছে ৯৯টি আসনে। অন্য দলগুলোর মধ্যে সমাজবাদী পার্টি (এসপি) ৩৭টি, তৃণমূল কংগ্রেস ২৯টি, ডিএমকে ২২টি, তেলেগু দেশম পার্টি (টিডিপি) ১৬টি, জনতা দল (জেডি-ইউ) ১২টি, শিবসেনা (উদ্ভব) নয়টি, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি (এনসিপিএসপি) সাতটি ও শিবসেনা (এসএইচএস) সাতটি আসনে জয় পায়।

এছাড়া, লোক জনশক্তি পার্টি (রাম বিলাস) পেয়েছে ৫টি আসন। ৪টি করে আসনে জয় পেয়েছে কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়া (মার্ক্সিস্ট)- সিপিআই (এম), ওয়াইএসআরসিপি ও রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি)। ৩টি করে আসনে জয় পেয়েছে আম আদমি পার্টি, ঝাড়খন্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম) ও ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লীগ (আইইউএমএল)।